বীর মুক্তিযোদ্ধা প্ল্যাটুন কমান্ডার ফরমান আলী’র জন্মদিনে শুভেচ্ছা

ফরমান আলী। চলচ্চিত্র, সংস্কৃতি এবং প্রশাসন মহলে অতি পরিচিত একটি নাম। একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। ১৯৭১ সালে মাত্র ১৭ বছর বয়সে উনি ছিলেন মুক্তি বাহিনীর প্ল্যাটুন কমান্ডার। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের সেই পৈশাচিক শোকাবহ ঘটনার পর বেশ কিছুদিন আত্মগোপনে থাকতে হয়েছিলো তাকে। ঘাতক ও তাদের দোসরদের নির্দেশে কিছু পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার মানুষ তাকে খুজেছিলো। পরবর্তীতে চুপিচুপি লেখাপড়া শেষ করেন। কিন্তু, মুক্তিযোদ্ধা হবার কারণে এলাকার স্বাধীনতা বিরোধী চক্র নজর রাখতো ফরমান আলীর যেন সরকারি চাকুরী না হয়। খুব গোপনে, একজন মুক্তিযোদ্ধা পুলিশ অফিসারের ভেরিফিকেশনের মাধ্যমে তার চাকুরী হয় কারা অধিদপ্তরে। চাকুরী জীবনে তিনি ছিলেন একজন চৌকষ অফিসার। কেবল বাংলাদেশে নয়, সম্ভবত তিনিই বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ফাঁসি কার্যকর কারি কারা কর্মকর্তা। আমি গর্ব করেই বলি, ১৫ আগস্টের যে খুনিদের ফাঁসি এ পর্যন্ত কার্যকর করা হয়েছে সেটা তার সামনেই। যুদ্ধাপরাধী হিসেবে প্রথম দফায় মৃত্যু দন্ডপ্রাপ্তদের ফাঁসি তিনিই কার্যকর করেছেন। বেশ কবার তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আক্রমনের চেস্টা হয়েছে। কাদের মোল্লার ফাঁসির পরের রাতেই আক্রমণের চেস্টা ঠেঁকাতে তাকে ফাঁকা গুলিও ছুঁড়তে হয়েছে। অবসরে চলে যাওয়ায় মীর কাশেমের ফাঁসি তিনি কার্যকর করেননি। সে সময় তাকে চুক্তি ভিত্তিক নিয়োগ দিতে চাইলেও তিনি তা নেননি। সেই ফরমান আলী আমার বন্ধু, আমার নিত্যদিনের সুহৃদ। অবসরের অনেক অনেক আগে থেকেই তিনি শিল্প ও সংস্কৃতির সংগে জড়িত মানুষের আপনজন। বিপদে আপদে পাশে থেকেছেন, ছবি প্রযোজনায় সহযোগিতা করেছেন, যার মধ্যে আমার লেখা ছবিও রয়েছে বেশ কটি। অবসরের পর তার প্রযোজনার নাটকও লিখেছি আমি। নিজেও করেছেন ছবি প্রযোজনা। আমার যে ক’জন ঘনিষ্ট মানুষ শোকের মাস আগস্টে নিজের জন্মদিন পালন করেন না, তাদের মধ্যে ফরমান আলী অন্যতম একজন। সেপ্টেম্বর শুরু হলে কখনো বড়ো করে, কখনো ঘরোয়া অনুষ্ঠান হয়। কখনো আমরা নিজেরাও আয়োজন করে থাকি। জন্মদিন পালন না হোক, শুভেচ্ছা তো জানাতে পারি? হ্যাঁ, আজ ২৯ আগস্ট বন্ধু ফরমান আলী’র জন্মদিন। জন্মদিনের শুভেচ্ছা। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন জীবনের প্রতিটি বছর।
মুজতবা সউদ