শুভেচ্ছা মতিন ভাই, ভালো থাকুন

ড. মতিন রহমান। আমাকে বড়ো বিপাকে ফেলে দিয়েছেন এই গুণী পরিচালক। অধ্যাপক। একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিল্ম এন্ড মিডিয়া বিভাগের প্রধান। মেধাবী এই মানুষটির সংগে আমার পরিচয় কত দশক আগে তা অনেক ভেবে বের করতে হবে। বেশ কটি সুন্দর চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন। ব্যাবসা সফল হয়েছে তাঁর নির্মাণ করা চলচ্চিত্র। প্রশংসিত হয়েছে। আবার পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার সহ অনেক পুরস্কার। মৃদুভাষী, সজ্জন এই মানুষটি সব সময় কথা বলেন হাসিমুখে। দেখলেই এগিয়ে আসেন এবং আমার ও পরিবারের সবার কুশল জিজ্ঞেস করেন। কারো বিপক্ষে কখনো কথা বলতে শুনেছি বলে মনে হয়না। জড়ান না চলচ্চিত্রের ঘরোয়া রাজনীতিতে। মোদ্দা কথা গোটা চলচ্চিত্র শিল্পে ভালো মানুষদের একজন হিসেবে বিবেচিত মতিন রহমান। এই ভালো মানুষটাই আজ আমাকে ফেলে দিয়েছেন বিপদে। আমার অগ্রজ বন্ধু, সুহৃদ, আমাকে এমন বিপদে ফেলবেন ভাবতেই পারিনি। উইকিপিডিয়া এবং বাংলাপিডিয়া দুটোতেই উনার জন্মদিন লেখা আছে ১৮ মার্চ। অথচ উনার ফেইসবুকে উনি যে তথ্য আপলোড করেছেন, তাতে রয়েছে আজ। অর্থাৎ ৩০ মে। যেটাই সঠিক হোক না কেন শুভেচ্ছা তো আমি যে কোনদিন, সকাল, বিকেল কিংবা রাত্রে জানাতেই পারি। আজও না হয় জানিয়ে দেই। শুভেচ্ছা মতিন ভাই। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন জীবনের প্রতিটি বছর।
মুস্তবা সউদ