বন্যায় প্লাবিত নিজ এলাকায় ঈদ উপহার দিলেন নাদিম

চলমান করোনা পরিস্থিতি’তে দেশের মানুষ নিজ নিজ জায়গা থেকে অসহায় গরীবদের পাশে দাঁড়াচ্ছেন।একে তো করোনা তার সাথে বন্যায় মানুষ আরো দিশেহারা অবস্থা।এক্ষেত্রে মিডিয়ার মানুষেরাও পিছিয়ে নেই। তারা তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে যাচ্ছে।এবার এই কাতারে নাম লেখালেন ঢাকার সিনেমার নায়ক নাদিম। বর্তমানে নাদিম অবস্থান করছেন নিজ গ্রাম শরীয়তপুরে।সেখান থেকে একটু পায় হাঁটা গ্রামগুলোতে যেখানে বন্যা প্লাবিত হয়েছে নিজ হাতে তিনি ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করছেন।গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ছয়টা থেকে প্রায় দেড়শো বাড়িতে তিনি এই উপহার পাঠিয়েছেন এবং আরো ৬০-৭০ টি বাড়িতে পৌঁছে দিবেন নিত্য প্রয়োজনী সামগ্রী।এই মহান কাজে তার সাথে যুক্ত ছিলেন কানাডিয়ান প্রবাসী ব্যাবসায়ী নাসির কাসেম।
বিষয়টি নিয়ে নাদিম ফেসবুকে লেখেন ,আলহামদুলিল্লাহ এইমাত্র আমাদের গ্রামের দরিদ্র অসহায়,নদী ভাঙ্গা ও বন্যা প্লাবিত মানুষের জন্য প্রায় ২০০টি পরিবারের কাছে ঈদ উপহার পৌঁছে দিতে সক্ষম হয়েছি। সীমাহীন কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি প্রিয় বড় ভাই কানাডা প্রবাসী দানবীর নাসির কাসেম প্রতি সঠিক পরামর্শ এবং সহযোগিতা করার জন্য।ধন্যবাদ দিয়ে ছোট করবো না আমার গ্রামের ছোট ভাই বন্ধুদের যারা সারাদিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে গরিব অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ পৌছে দিয়েছেন।হে আল্লাহ আমাদের সবাইকে করোনা ভাইরাস, নদী ভাঙ্গন এবং বন্যার ভয়াবহতা থেকে রক্ষা করুন ! আমিন। স্থান:-কাথুরিয়া,পালেরচর, জাজিরা, শরীয়তপুর।
নাদিম আরো বলেন ,আমি খুব খুশি যে তাদের পাশে দাঁড়াতে পেরে এবং ধন্যবাদ জানাই প্রিয় নাসির কাসেম ভাইকে তিনি তার সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন এবং তিনি তার মহানুভূতির পরিচয় আবার দিলেন।আমাদের এই কার্যক্রম চলতেই থাকবে আগামীতে।
প্রসঙ্গত,২০১২ সালে ‘তোমার সুখে আমার সুখ’ সিনেমার মধ্যে দিয়ে বড় পর্দায় অভিষেক ঘটে।তিনি সিনেমায় আসার আগে মডেলিং এবং রাম্প শো করতেন।দীর্ঘ ৯ বছরের ক্যারিয়ারে অনেক ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি।সবশেষ কাজী হায়াৎ পরিচালিত এবং শাকিব খান প্রযোজিত ‘বীর ‘ সিনেমায় কাজ করেন।
রোমান রায়