ডিএমপি নতুন কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম এর সাথে একতার চেয়ারম্যান

বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের মহাসড়কে। বাংলাদেশ তার কাঠামোগত দিক থেকে চতুর্দিকে উন্নয়নের মেলা জমিয়েছে।উল্লেখযোগ্য উন্নয়নের রেকর্ড কুড়িয়েছে বীর সৈনিকের সদস্য ডিএমপি পুলিশ কর্মকর্তাগণ,যা ভাষায় বুঝিয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশের অনুপযোগী। তারা ডিএমপির জন্মলগ্ন থেকেই দেশ ও জাতিকে নিয়ে চিন্তিত।
ইতিমধ্যে ডিএমপির ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া তার সুক্ষ্ম চিন্তা ও বুদ্ধি দিয়ে বীর পুরুষের মডেল অর্জন করে আমাদের বিদায় জানিয়ে গেলেন। তাঁর স্থলাভিষিক্ত হলেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ৩৪তম কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম। তিনি এর আগে সিআইডির অতিরিক্ত আইজিপি হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন। তিনি ১৯৮৯ সালে ৮ম বিসিএস (পুলিশ) ক্যাডারে সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশে যোগ দেন। চাকরি জীবনে তিনি পুলিশ সুপার হিসেবে নারায়ণগঞ্জ জেলা, পটুয়াখালী জেলা, সুনামগঞ্জ জেলা, কুমিল্লা জেলায় দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও পুলিশ কমিশনার চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ, ডিআইজি চট্টগ্রাম রেঞ্জ, ডিআইজি ঢাকা রেঞ্জ, এন্টি টেররিজমের প্রধান (অ্যাডিশনাল আইজিপি), অ্যাডিশনাল আইজিপি (এইচআরএম) পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স ও অ্যাডিশনাল আইজিপি সিআইডি হিসেবে দক্ষতা ও সাফল্যের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন।
তিনি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) পদে উপনীত হওয়ায় একতা কালচারাল এন্ড সোস্যাল অর্গানাইজেশনের সকল সদস্য অনেক আনন্দিত। স¤প্রতি একতা কালচারাল এন্ড সোস্যাল অর্গানাইজেশন (মাদক,সন্ত্রাস ও জঙ্গি বিরোধী) সংগঠনের চেয়ারম্যান জনাব জয়নাল রেজা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম এর সাথে সৌজন্যমূলক সাক্ষাৎ করেন।
ডিএমপি কমিশনার একতা কালচারাল এন্ড সোস্যাল অর্গানাইজেশনের সকল কর্মসূচি দেখে অনেক খুশি হোন এবং সংগঠনের চেয়ারম্যান জনাব জয়নাল রেজাকে কাজ করার উৎসাহ মূলক বিভিন্ন পরামর্শ দেন।
আলমগীর কবির