এক ফ্রেমে শুভশ্রী-মিমি

দীর্ঘদিন লুকিয়ে প্রেম করেন টলিউড পরিচালক রাজ চক্রবর্তী ও চিত্রনায়িকা শুভশ্রী গাঙ্গুলি। এ যুগল প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন। কারণ শুভশ্রীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানোর আগে রাজ চুটিয়ে প্রেম করেছেন টলিউড অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তীর সঙ্গে। সব সমালোচনার ইতি টেনে ২০১৮ সালের ৬ মার্চ বাগদান সারেন শুভশ্রী-রাজ; একই বছরের ১১ মে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতাও সম্পন্ন করেন তারা। সহশিল্পী হিসেবে মিমি-শুভশ্রীর মাঝে ভালো সম্পর্ক ছিল। কিন্তু রাজকে বিয়ে করার কারণে এ সম্পর্কে ভাটা পড়ে। এরপর মিমি-শুভশ্রী একই বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন। কিন্তু একসঙ্গে শুটিং করেননি। শুভশ্রী পুত্রসন্তান জন্মের পর মিমি উপহার পাঠিয়েছিলেন। কিন্তু শুভশ্রী-মিমিকে আর এক ফ্রেমে দেখা যায়নি। এবার মন কষাকষির অবসান ঘটিয়ে একসঙ্গে ফ্রেমবন্দি হলেন তারা। সম্প্রতি জানা গেল, জাঁকজমকভাবে পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপূজাকে ইউনেস্কোর স্বীকৃতি উদযাপন করলো রাজ্য সরকার। এ উপলক্ষে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সংস্থার সদস্যদের সম্মান জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। সেখানেই নৃত্য পরিবেশন করেন শুভশ্রী। আর এ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন মিমি। এদিন হলুদ শাড়ি, মাথায় জুঁই ফুলের মালায় সেজেছিলেন মিমি। আর লাল শাড়িতে দেখা যায় শুভশ্রীকে। সব সমীকরণ বদলে দিয়ে এক ফ্রেমে ধরা দেন এই দুই নায়িকা। শুভশ্রী বিয়ের পর পুরোপুরি সংসারে মনোযোগী হন। পুত্র ইউভান অনেক বড় হয়েছে। সন্তান-সংসার সামলে কাজেও ফিরেছেন তিনি। অন্যদিকে ব্যক্তিগত জীবনে এখনো একা মিমি। রাজনীতিতে নাম লিখিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এখন অভিনয় ও রাজনীতি নিয়েই ব্যস্ত সময় পার করছেন মিমি।

রেদুয়ান খন্দকার