হায়াত ভাইকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন

অভিনেতা আবুল হায়াত এর জন্মদিনে গভীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা একুশে পদক ও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত মঞ্চ, টেলিভিশন, চলচ্চিত্র অভিনেতা, নাট্যকার, পরিচালক প্রযোজক আবুল হায়াতের আজ জন্মদিন। আবুল হায়াত ১৯৪৪ সালের ৭ই সেপ্টেম্বর পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদে জন্মগ্রহণ করেন । হায়াত ভাইকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন । বাবা আব্দুস সালাম এবং মা শামসুন নাহার। ১৯৪৭ সালে তাঁর পরিবার বাংলাদেশে চলে আসেন। বাবা চট্টগ্রামের ওয়াজিবুল্লাহ ইনস্টিটিউটের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তাঁর কৈশোর ও শৈশব কেটেছে চট্টগ্রামে। চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুলে কিছুদিন লেখাপড়া করেন। রেলওয়ে উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও চট্টগ্রাম কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করে ১৯৬২ সালে বুয়েটে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ভর্তি হন এবং ১৯৬৭ সালে পাস করেন । থাকতেন শেরে বাংলা হলে । ১৯৬৮ সালে ঢাকা ওয়াসায় প্রকৌশলী পদে যোগ দেন। ১৯৬৮ সালে তিনি নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়ে যোগ দেন। একই বছর তিনি বিটিভিতে ইডিপাস নাটকে অভিনয় শুরু করেন এবং এখনো পর্যন্ত তাঁর অভিনয় অব্যাহত আছে । মাত্র ১০ বছর বয়সে তিনি টিপু সুলতান মঞ্চ নাটকে প্রথম অভিনয় করেন । ১৯৭০ সালে তিনি মাহফুজা খাতুনকে বিয়ে করেন । ১৯৭১ সালের ২৩ শে মার্চ তার কন্যা খ্যাতিমান অভিনেত্রী বিপাশা হায়াতের জন্ম । ১৯৭২ সালে তিনি প্রথম ঋত্বিক কুমার ঘটকের পরিচালনায় তিতাস একটি নদীর নাম চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন । ১৯৭৮ সালে তিনি লিবিয়ায় তিন বছর চাকরি করেন । ১৯৮২ সালে ঢাকা ওয়াসার চাকরি থেকে অবসর নেন । ১৯৮৭ সালে তিনি বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রে কাজ শুরু করেন । আবুল হায়াত প্রায় এক হাজারটির মত নাটক ও বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করেছেন । ১৯৯০ সালে তাঁর প্রথম উপন্যাস প্রকাশ হয় আপ্লুতমন । বেশ কয়েকটি ছোট গল্পও লিখেন । চলচ্চিত্রে তিনি কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ২০০৭ সালে দারু চিনি দ্বীপ ছবিতে অভিনয়ের জন্য পার্শ্ব চরিত্রে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। ২০১৫ সালে তিনি একুশে পদক পান।
ফকরুল আলম সোহাগ