চ্যালেঞ্জিং ভূমিকায়…

বলিউডে আনুশকা শর্মার ১০ বছর হয়ে গেছে। ২০০৮ সালে তার অভিনীত প্রথম সিনেমা ‘রাব নে বানাদি জোড়ি’ মুক্তি পায়। রুপালি পর্দায় নায়িকা হিসেবে তার অভিষেক হয়েছিল শাহরুখ খানের বিপরীতে। বলিউডের শীর্ষ স্থানীয় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ইয়াশ রাজ ফিল্মের সিনেমায় শুরুতেই অভিনয়ের সুযোগ লাভ আনুশকার জন্য বিরাট এক প্রাপ্তি ছিল সন্দেহ নেই। গত ১০ বছরে তার ক্যারিয়ার অনেক দূর এগিয়েছে। এই সময়ে নিজেকে বলিউডের প্রথম সারির জনপ্রিয় অভিনেত্রীর কাতারে নিয়ে যেতে পেরেছেন আনুশকা। গত ১০ বছরে তিনি অভিনীত সিনেমাগুলোয় বিভিন্ন ধরনের চরিত্রে নিজেকে তুলে ধরেছেন চমত্কারভাবে। একজন সুঅভিনেত্রী হিসেবে তার অনেক উত্তরণ ঘটেছে। ফলে বলিউডের নামীদামি চিত্রনির্মাতাদের সিনেমায় নায়িকা চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পেয়ে চলেছেন আনুশকা শর্মা। অভিনয়ের পাশাপাশি নিজেকে সিনেমা প্রযোজনার সঙ্গে সম্পৃক্ত করেছেন ৩০ বছর বয়সী এই অভিনেত্রী। ‘বদমাশ কোম্পানি’, ‘পাতিয়ালা হাউস’, ‘লেডি ভার্সেস রিকি বেহল’, ‘দিল ধাড়াকানে দো’, ‘মাতরু কি বিজলি কা মানডোলা’, ‘বোম্বে ভেলভেট’, ‘ব্যান্ড বাজা বারাত’, ‘এন এইচ টেন’, ‘জব তক হ্যায় জান’, ‘পরি’, ‘সুলতান’, ‘ফুলহারি’, ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’, ‘পিকে’, ‘সানজু’ ছবিগুলোতে দর্শক আনুশকাকে দেখেছেন। অভিনয়গুণে দর্শকহূদয়ে বেশ ভালোভাবেই ঠাঁই করে নিয়েছেন তিনি। তার অভিনীত নতুন কোনো সিনেমা মুক্তি পেলে দর্শকদের মধ্যে এক ধরনের চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। সবার মনে প্রত্যাশা জাগে, নতুন সিনেমায় প্রিয় অভিনেত্রীটিকে ভিন্ন রূপে দেখা যাবে। এ সপ্তাহে আনুশকা শর্মা অভিনীত নতুন সিনেমা ‘সুই ধাগা’ মুক্তি পাচ্ছে। এখানে তাকে প্রথমবারের মতো এই সময়ের আলোচিত তরুণ অভিনেতা বরুণ ধাওয়ানের বিপরীতে দেখা যাবে। এর আগে শাহরুখ খান, সালমান খান, আমির খান, রণবীর সিং, রণবীর কাপুর, শহিদ কাপুর, অক্ষয় কুমার প্রমুখ জনপ্রিয় তারকা অভিনেতাদের সাথে দেখা গেছে তাকে। যদিও ওই সিনেমাগুলোর চেয়ে আনুশকার সাম্প্রতিক ছবি ‘সুই ধাগা’র বিষয়বস্তু সম্পূর্ণ আলাদা। ছবিটির গল্প আবর্তিত হয়েছে ভারতের ঐতিহ্যবাহী সূচিশিল্পীদের জীবনের আনন্দ-বেদনাকে উপজীব্য করে। এখানে বরুণ ধাওয়ান অভিনয়ের করেছেন এক দর্জির ভূমিকায়। খুবই সাধারণ বেশভূষার সাদামাটা একজন মানুষ হিসেবে পর্দায় উপস্থিত হবেন। এর আগে অভিনীত সিনেমাগুলোতে একজন রোমান্টিক যুবক কিংবা চটুল স্বভাবের চটপটে তরুণ হিসেবে তাকে দেখা গেলেও এবার একজন খেটে খাওয়া সাধারণ ছাপোষা মানুষ হিসেবে পর্দায় দেখা যাবে। ‘সুই ধাগা’ নায়ক বরুণ ধাওয়ানের জন্য যেমন একটি নতুন চ্যালেঞ্জ হিসেবে গণ্য হয়েছে, ঠিক একইভাবে নায়িকা আনুশকা শর্মার জন্য ভিন্ন পথে পদক্ষেপ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। ‘সুই ধাগা’ ছবিতে একজন দর্জির বউরূপে আসছেন আনুশকা। যে সংসারে স্বচ্ছলতা ও স্বাচ্ছন্দের জন্য একজন সূচিশিল্পী হিসেবে কাজ করে বাড়তি উপার্জনের চেষ্টা করে যায় স্বামীর পাশাপাশি। ছবিটিতে নিজের অভিনয় নিয়ে দারুণ উচ্ছ্বসিত আনুশকা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘একজন অভিনেত্রীকে সব ধরনের চরিত্রে অভিনয়ের জন্য নিজেকে প্রস্তুত রাখতে হয়, সব ধরনের চরিত্রে অভিনয়ের সাহসও থাকতে হয়। ‘সুই ধাগা’ ছবির চিত্রনাট্য পড়ে আমি তখনই চ্যালেঞ্জটা গ্রহণ করেছিলাম। আমি সবসময় গ্ল্যামারাস শহুরে স্মার্ট নারীর চরিত্রে অভিনয় করব তা তো হতে পারে না। এ পর্যন্ত বিভিন্ন সিনেমায় আমি বিচিত্র রোলে অভিনয় করে নিজের সক্ষমতা প্রমাণ করেছি। ‘সুই ধাগা’য় আমার অভিনীত চরিত্রটি একজন আটপৌরে গৃহবধূর, সে একজন মেহনতী নারী, আমি বেশ থ্রিল অনুভব করেছি এ চরিত্রে অভিনয়ের সময়।’ সম্প্রতি একজন সুঅভিনেত্রী হিসেবে স্মিতা পাতিল অ্যাওয়ার্ড লাভ করেছেন আনুশকা। এ বছরেই তাকে দেখা যাবে শাহরুখ খানের সাথে ‘জিরো’ ছবিতে। বহুল আলোচিত ছবিটিতে আনুশকা একজন বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী তরুণীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন।
অর্ণব আদিত্য