চলে গেলেন প্রানের মানুষ সৈয়দ লুৎফুল হক

শ্রদ্ধাভাজন সাংবাদিক, অংকন শিল্পী, লেখক বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ লুৎফুল হক আজ জানুয়ারি সকালে ঢাকার একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলায়হি রাজেউন। দুপুরে প্রেস ক্লাব চত্বরে তাঁর জানাযা অনুস্ঠিত হয়। বাদ আসর বনানী কবরস্থানে তাঁর দাফন সম্পন্ন হবার কথা। সৈয়দ লুৎফুল হক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন আর্টস থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। এরপর সাংবাদিকতা শুরু করেন দৈনিক ইত্তেফাকে। পরবর্তীতে তিনি দৈনিক বাংলা, সাপ্তাহিক বিচিত্রা, ইনডিপেনডেন্ট পত্রিকায় কাজ করেন। আগে থেকেই চিনতাম। আনন্দ বিচিত্রায় কাজ করার সুবাদে সুসম্পর্ক গড়ে উঠেছিলো লুৎফুল ভাইয়ের সংগে। অত্যন্ত স্নেহ করতেন। সাংবাদিকতা, মুরাল তৈরি, ইলাস্ট্রেশন এসবের পাশাপাশি সমানতালে লিখতেন সৈয়দ লুৎফুল হক। শিল্পকলা বিষয়ক দশটি বই সহ তাঁর গ্রন্থ সংখ্যা ১৫ টি। নতুন এবং পরবর্তী প্রজন্মের জন্য সৈয়দ লুৎফুল হক রচিত গ্রন্থ গুলো চিরকাল শিক্ষনীয় হয়ে থাকবে। শিল্পকলার নানা বিষয় রয়েছে এই সব গবেষণা ধর্মী গ্রন্থে। এ ছাড়াও তিনি বাংলা বর্ণমালার গ্রেডিং নিয়ে কাজ করেছেন। আঁকায়, লেখায়, মুরাল তৈরিতে সৃষ্টিশীলতার জগৎ ঐশ্বর্যমণ্ডিত করেছেন সৈয়দ লুৎফুল হক। পেয়েছেন শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীন পদক, অতীশ দীপঙ্কর পদক, নীপা পদক, জাতীয় প্রেস ক্লাব লেখক সম্মাননা পদক সহ অনেক পুরস্কার। মহান আল্লাহ যেন তাঁর সকল গুনাহ মাফ করেন এবং তাঁকে বেহেশত নসীব করেন।
মুজতবা সউদ