সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের জন্মদিনে শ্রদ্ধা এবং শুভেচ্ছা

“অপুর সংসার”। সত্যজিৎ রায়ের এই ছবিতে প্রথমবারের মতো পর্দায় এসেই বাংলা ছবির দর্শকদের দৃষ্টি কেড়ে নিয়েছিলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। কোলকাতার উত্তম-ময় চলচ্চিত্র শিল্পে যখন অন্য নায়কদের মাথা তুলে দাঁড়ানোই দায়, তখন আলাদা বৈশিষ্টে, নিজের ভিন্ন এক ভাবমূর্তিতে উজ্জ্বল ছিলেন এই তারকা। স্কুল বেলা থেকেই নাটকে অভিনয় করতে শুরু করেন। কলকাতার সিটি কলেজে বাংলা সাহিত্য নিয়ে পড়াশোনার সময়ও নাটক করতেন। সে সময়ই পরিচয় হয় প্রখ্যাত নাট্য ব্যক্তিত্ব শিশির ভাদুড়ির সঙ্গে। কোলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তর করার সময় তাঁর নাটকে অভিনয় করেন। এ সময় সৌমিত্র চোখে পড়েন সত্যজিৎ রায়ের। বলা বাহুল্য সত্যজিৎ রায়ের ১৪ টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন সৌমিত্র। পেয়েছেন ভারতের পদ্মভূষণ এবং দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার। পশ্চিম বংগের বঙ্গভূষণ পুরস্কার। রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডি.লিট সম্মাননা। ফরাসী সরকারের লিজিওন অফ অনার এবং কম্যান্দর দ্যঁ লার্দ্র দে আর্ত এ দে লের্ত্র। এ ছাড়াও এই অভিনয় শিল্পীর ঝুলিতে রয়েছে অনেক অনেক পুরস্কার, পদক ও সম্মাননা। আদি নিবাস বাংলাদেশের শিলাইদহে হলেও, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় জন্মগ্রহন করেন ভারতের কৃষ্ণনগরে, ১৯৩৫ সালের ১৯ জানুয়ারি। শ্রদ্ধা এবং শুভেচ্ছা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের স্মৃতির প্রতি।
মুজতবা সউদ