নারী পাচারের গল্পে সজল-নাদিয়া’কে নিয়ে দীপু হাজরার ‘ইচ্ছে দহন’

নারী পাচারের উদ্দেশ্যে কীভাবে মেয়েদের ফাঁদে ফেলা হয়, কীভাবে অসহায় মানুষ তার আত্মজা কিংবা স্বজনকে প্রতারকদের হাতে তুলে দেন- সেটাই এবার তুলে ধরা হয়েছে নাটকের গল্পে। নাটকের নাম ‘ইচ্ছে দহন’। আসাদুজ্জামান সোহাগের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করছেন জনপ্রিয় নাট্যনির্মাতা দিপু হাজরা। সম্প্রতি রাজধানীর আমিন বাজার এলাকায় নাটকের শুটিং করা হয়েছে। এতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন তারিক আনাম খান, সজল, সালাহ্‌ খানম নাদিয়া, এসএম মহসিন, মীর শহীদ, জিনাত রেহানা লুনা, মীর আলী, আরিয়ান ইভা, আনিকা আফরিন প্রমুখ। জামশেদ নামে এক নারী পাচারকারীকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে নাটকের কাহিনি। জামশেদের মূল ব্যবসা নারী পাচার। নানা কৌশলে সে গ্রাম কিংবা শহর থেকে দালালের মাধ্যমে নারীদের ঢাকায় নিয়ে আসে। এরপর তাদের সেখান থেকে পাচার করে। এবার চোখ পড়েছে তারই অফিসের নাইট গার্ডের মেয়ে অন্তরার ওপর। যদিও নাইট গার্ডের দ্বিতীয় স্ত্রীর মেয়ে। টাকার লোভে বাবার বয়সী লোকটিকে বিয়ে করতে হয় অন্তরাকে। কাবিননামা, বিয়ে সবই ছিল সাজানো নাটক। বিয়ের পর তেমন সুখ ছিল না অন্তরার সংসারে। মূলত তাকেও পাচার করার জন্যই এমন গল্প সাজানো হয়েছে। বিষয়টি অন্তরা টের পায়। একদিন কাকডাকা ভোরে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। আচমকা উবার ড্রাইভার জোসেফের গাড়ির ওপর এসে পড়ে অন্তরা, ঘটে মারাত্মক দুর্ঘটনা। এরপর ঘটনা মোড় নেয় ভিন্ন দিকে। এমনই গল্প নিয়ে নির্মিত ‘ইচ্ছে দহন’ নাটকটি শিগগিরই একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে প্রচার হবে বলে নির্মাতা জানান।
রোমান রায়