মানবিক উদ্যোগে উদ্যোক্তা প্রীতি ইসলাম পারভীন

দুস্থ ও মেহেনতি মানুষদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ করছেন উদ্যোক্তা প্রীতি ইসলাম পারভীন বাংলাদেশের এসএমই খাতের একজন সফল উদ্যোক্তা প্রীতি যুব কল্যাণ সংস্থা’র সভাপতি প্রীতি ইসলাম পারভীন পবিত্র ঈদ উল ফিতরে অসহায়, মেহনতি ও দুস্থ মানুষদের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছেন।
মুসলিম উম্মাহর সবচেয়ে বড় আনন্দের দিন পবিত্র ঈদুল ফিতর। তবে এবার প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সে আনন্দকে অনেকটা ফিকে করে দিলেও মানবিকতার ডাকে সাড়া দিয়ে সে আনন্দকে খুঁজে নিয়েছেন উদ্যোক্তা প্রীতি ইসলাম পারভীন।
অসহায় পরিবারদের ঈদ উপহার দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে উদ্যোক্তা প্রীতি উদ্যোক্তা বার্তাকে বলেন, “করোনাভাইরাসের কারণে বহু মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। এইসব কর্মহীন মানুষের ঈদ আনন্দ করার মতো আর্থিক সঙ্গতি নেই। তাই তাদের কথা চিন্তা করে আমি আমার সামর্থ্য অনুযায়ী প্রায় ১২০ জন অসহায়, মেহনতি ও দুস্থ মানুষের হাতে ঈদ উপহার সামগ্রী তুলে দিয়েছি।”
ঈদ উপহার প্যাকেজে চাল, ডাল, আলু, পেঁয়াজ, মুড়ি, তেল, লাচ্ছা-সেমাই, চিনি, গুঁড়া দুধ, লবণ, জীবাণুনাশক সাবান, হ্যান্ড গ্লাভস ও মাস্ক দেয়া হয়। করোনার এই সময়ে একটি পরিবার যেন সুষ্ঠ ভাবে ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে পারে এই চিন্তা মাথায় রেখে তিনি এই সব পণ্যসামগ্রী দ্বারা ঈদ উপহার প্যাকেজ তৈরী করেন।
এছাড়া বাংলাদেশের প্রায় ৫ লক্ষ পার্লারের ১৫ লক্ষ কর্মচারীরা এই মহামারীতে কর্মহীন হয়ে পড়ায় প্রবল অর্থকষ্টে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। তাদের দুঃখ দুর্দশা দেখে উদ্যোক্তা প্রীতি বেশ কিছু পার্লার মালিক ও কর্মচারীকে নগদ অর্থ সহায়তা ও ঈদ বস্ত্র উপহার দেন।
উল্লেখ্য, উদ্যোক্তা প্রীতি ইসলাম পারভীন নিজে একজন ক্যান্সারের রোগী। এই রোগের চিকিৎসার পেছনে তাঁকে অনেক টাকা ব্যয় করতে হয়। তদুপরি তিনি দেশের মানুষের দুর্দশা দেখে নিজ উদ্যোগে অসহায়, মেহনতি ও দুস্থ মানুষদের মাঝে এইসব ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন।
উদ্যোক্তা সমাজের সামর্থ্যবানদের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়ে বলেন, করোনা মহামারীর এই সময়ে আমাদের সবার উচিত অসহায়, মেহনতি ও দুস্থ মানুষদের পশে দাঁড়ানো। সমাজের বিত্তবানরা যদি এইসব অসহায় মানুষের পশে দাঁড়ায় তাহলে আল্লাহর সহায় অবশ্যই আমরা করোনাকে জয় করতে পারবো। পাশাপাশি তিনি উদ্যোক্তাদের প্রতি তাঁদের কর্মীদের পরিবারের খোঁজ নেয়ার প্রয়োজনীয়তার কথাও বলেন।
সূত্র: উদ্যোক্তা বার্তা