এফডিসিতে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ইফতার আয়োজন

দেশে চলমান করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতি এবং কাজ কমে যাওয়ায় অনেকটাই বেকার হয়ে পড়েছেন চলচ্চিত্রকর্মীরা। এরই মধ্যে পেশা বদল করেছেন প্রায় ৫০ শতাংশ কর্মী। এই করোনা ভাইরাসের তারা আরো বেশি কষ্টে দিন কাটছে। ভালো নেই চলচ্চিত্রের দিনমজুররা। একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে যুক্ত থাকে ১৮টি পেশার মানুষ। এদের নব্বই শতাংশই দৈনিক মজুরিতে কাজ করে থাকেন। একসময় চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন পাঁচ হাজারের বেশি মানুষ। তবে বর্তমানে চলচ্চিত্রের অবস্থা বেহাল, যে কারণে পেশা বদল হয়েছে অনেকেরই। তবু চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে প্রায় আড়াই হাজার মানুষ।
চলচ্চিত্রের আঁতুর ঘর খ্যাত বিএফডিসি এখন নীরব, নিস্তব্ধ। এফডিসির মসজিদে নিয়মিত কোরআন তেলাওয়াত, জিকির ও দোয়া করা হচ্ছে। নিরাপত্তাকর্মীরাও এফডিসি পাহারা দিয়ে যাচ্ছেন। এ পরিস্থিতিতে তাদের জন্য ও এফডিসির এলাকার আশেপাশের অসচ্ছল মানুষেদের জন্য ইফতারের ব্যবস্থা করেছে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। গত শুক্রবার বিএফডিসিতে ইফতার বিতরণের আয়োজন করা হয়। এ সময় শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানসহ সমিতির অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
এ প্রসঙ্গে জায়েদ খান বলেন, ‘এফডিসি বন্ধ থাকলেও এখানে সিকিউরিটি ম্যান, মসজিদের ইমামসহ কিছু লোক আছেন। তাদের জন্য ইফতারের ব্যবস্থা করেছি। এছাড়া এফডিসির আশেপাশে অসচ্ছল খেটে খাওয়া মানুষ রয়েছে তাদের জন্যও ইফতারের আয়োজন করা হয়।’ এর আগে একাধিকবার শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে অসচ্ছল শিল্পীদের সহায়তা করা হয়।
রোমান রায়