কিশোরগঞ্জে একদিনে করোনা জয় করে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৭ জন

কিশোরগঞ্জে এবার একদিনে ৭ জন করোনাভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন তিনজন চিকিৎসক, একজন পুলিশ কর্মকর্তা, একজন ডিপ্লোমা ডেন্টাল এবং দুইজন গৃহিণী। এর আগে জেলায় আরো সাতজন করোনাভাইরাস থেকে সুস্থ হয়েছেন। এনিয়ে জেলায় করোনাভাইরাস থেকে মোট ১৪জন সুস্থ হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৬ জন চিকিৎসক ও দুই জন পুলিশের এসআই রয়েছেন। তাদের মধ্যে গত বৃহস্পতিবার একদিনে সর্বোচ্চ সাতজন সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন। তাদের মধ্যে ৬ জনকে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। বাকি একজন ভৈরব থেকে সুস্থ হয়েছেন। কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান জানান, পর পর দুটি নমুনা পরীক্ষায় কোভিড-১৯ নেগেটিভ আসায় গত বৃহস্পতিবার এই ৭ জনকে সুস্থতার ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।
তারা হলেন, ইটনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দুই চিকিৎসক ডা. আলেয়া ফেরদৌস তন্বি ও ডা. তানভীর রহমান, ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. কিশোর কুমার ধর, ভৈরব থানার এসআই দেলোয়ার হোসেন পাটোয়ারী, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার বত্রিশ এলাকার জবা ভৌমিক (৬০) ও চৌদ্দশত ইউনিয়নের পাড়াপরমানন্দপুরের রকি (২২) এবং অষ্টগ্রাম উপজেলার আউলিয়া আক্তার (২৫)।
এর আগের দিন গত বুধবার জেলায় চারজন সুস্থ হয়েছেন। তারা হলেন, ভৈরব উপজেলার ওষুধ ব্যবসায়ী তৌহিদ আহমেদ ওরফে আর্থ কিশোর, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার মহিনন্দ গ্রামের সাবেক সেনা কর্মকর্তা বদরুল ইসলাম এবং তাড়াইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দুই চিকিৎসক ডা. সাবিহা পারভীন ও ডা. ইফতেখার আনাম নোমান।
তাদের মধ্যে তাড়াইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দুই চিকিৎসক ডা. সাবিহা পারভীন ও ডা. ইফতেখার আনাম নোমান ময়মনসিংহের এস.কে হাসপাতালে এবং বদরুল ইসলাম ও তৌহিদ আহমেদ ওরফে আর্থ কিশোর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন। এর আগে জেলায় আরো তিনজন করোনাভাইরাস থেকে সুস্থ হয়েছেন। এই তিনজনের মধ্যে ২৮ এপ্রিল কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ভৈরব থানার এসআই মো. চাঁন মিয়া।
এর আগে গত ২৭ এপ্রিল করোনা ভাইরাসমুক্ত হয়ে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পান করিমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. আরিফ আহমেদ জনি। এর আগে জেলায় প্রথম ব্যক্তি হিসেবে করোনা ভাইরাসমুক্ত হয়েছিলেন ইটনা সদর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর রশীদ। গত শনিবার (২৫ এপ্রিল) তিনি শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পান।
আলমগীর কবির