নিজ এলাকায় মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিলেন পপি

করোনা ভাইরাস আতঙ্ক এখন বিশ্বজুড়ে। এরই মধ্যে বাংলাদেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত বেশ কয়েকজনকে শনাক্ত করা হয়েছে। জনসমাগমস্থল এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিচ্ছে সরকার। আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে দেশজুড়ে।
করোনা মোকাবেলায় ইতোমধ্যে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ অফিস-আদালত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
করোনার প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশের শোবিজ অঙ্গনেও। ইতোমধ্যে বন্ধ করা হয়েছে সব ধরণের শুটিং। পাশাপাশি তারকারাও করোনা নিয়ে নানা পোস্ট দিচ্ছেন তাদের ফেসবুকে। পরামর্শ দিচ্ছেন বাসায় থাকতে ও নিয়ম মেনে চলতে। পিছিয়ে নেই জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা পপিও।
পপি বর্তমানে অবস্থান করছেন নিজের গ্রামের বাড়িতে। আর দেশের খারাপ সময় নিজের এলাকার মানুষকে সচেতন করার পাশাপাশি কোরআন খতম সহ, বিনামূল্যে বিভিন্ন সামগ্রী বিতরণ করছেন।
অর্থসূচকের সাথে পপির। তিনি বলেন, আমার জায়াগা থেকে আমি চেস্টা করে যাচ্ছি যতটূকু সম্ভব। নিজে সেইভ থেকে সাধারণ মানুষদের করোনা নিয়ে সচেতন করছি। কারণ আমরা সব সময় নিউজ, ফেসবুকের মাধ্যমে এর ভয়াবহতা সম্পর্কে জানতে পারছি। কিন্তু গ্রামের মানুষ করোনাভাইরাস নাম জানলেও এর থেকে মুক্তি কিংবা এর ভয়াবহতা জানেনা৷ তাই আমি তাদের এইসব নিয়ে কথা বলছি, সচেতন করছি।
এদিকে পপি তার এলাকায় মসজিদ, মাদ্রাসা ও এতিম খানায় করোনা থেকে মুক্তির জন্য দিয়েছেন কোরআন খতম। পাশাপাশি বিনামূল্যে বিতরণ করছেন মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান।
তবে এই মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান ব্যবস্থা করতেও বেশ বিপাকে পড়তে হয়েছে এই নায়িকাকে। কেননা চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান তেমন ভাবে পাওয়া যাচ্ছে না গ্রাম গুলোতে৷ আর তাই পরবর্তীতে ঢাকা থেকে সব কিছু ব্যবস্থা করে সাধারণ মানুষের মাঝে বিতরণ করেন তিনি।
এদিকে দেশের বিত্তবানদের প্রতি আহহবান জানিয়ে পপি বলেন, আমরা না হয় কোন ভাবে দিন কাটালাম কিন্তু যারা দিনমুজুর তাদের কি হবে? তাই সবার উচিত তাদের জন্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়া।
রোমান রায়