করোনাভাইরাস আতঙ্ক সচেতনতায় চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি

করোনাভাইরাস আতঙ্কিত বিশ্বজুড়ে। এরই মধ্যে বাংলাদেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত তিনজনকে শনাক্ত করা হয়েছে। জনসমাগমস্থল এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিচ্ছে সরকার। আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে দেশজুড়ে। অযথা আতঙ্ক না বাড়িয়ে সচেতন হয়ে ভাইরাস মোকাবিলায় কাজ করবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। এমনটাই জানালেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।
এ বিষয়ে গত সোমবার বিকেলে জায়েদ খান বলেন, ‘শিল্পীদের কাজ শুধু অভিনয় করা নয়, সমাজের যেকোনো প্রতিকূলতায় সবার পাশে দাঁড়ানো। এই মুহূর্তে সারা বিশ্বে তথা বাংলাদেশেও বিরাজ করছে করোনাভারাস আতঙ্ক। আমরা চাই মানুষ আতঙ্কগ্রস্ত না হয়ে সচেতন হোক। এতে আমরা পারব এই ভাইরাস মোকাবিলা করতে। সমিতির পক্ষ থেকে সচেতনতা তৈরি করতে আমরা কাজ করব। দু-একদিনের মধ্যে সমিতিতে মিটিং করে, সিদ্ধান্ত নিয়ে আমরা কার্যক্রম হাতে নেব। চলচ্চিত্রের সব শিল্পীকে সঙ্গে নিয়ে সচেতনতায় আমরা প্রচারণা চালাব।
জায়েদ খান আরো বলেন, ‘সচেতনা তৈরি করতে এরই মধ্যে আমরা কাজ শুরু করেছি। এসএমএস এর মধ্যে দিয়ে সবাইকে সচেতন করার চেষ্টা করছি। মুজিবশতবর্ষে আমাদের যে কার্যক্রম ছিল, তা শিথিল করছি। বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা করার কথা ছিল, তাও আমরা ছোট করে নিয়ে আসছি, কারণ লোক সমাগম থেকে ভাইরাস ছড়াতে পারে। আনুষ্ঠানিকভাবে সচেতনতা তৈরির কার্যক্রম চালানোর আগে আমরা সংবাদ সম্মেলন করে সবাইকে জানাব।’
তবে এই ভাইরাস সম্পর্কে স্বস্তির বিষয় হলো মৃত্যুর সংখ্যা ধীরে ধীরে বাড়লেও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরার ঘটনাই ঘটছে বেশি। এখন পর্যন্ত সারা বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক লাখ ১০ হাজারের কাছাকাছি। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে তিন হাজার ৮২৮ জনের। অন্যদিকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৬২ হাজার ২২৫ জন। আর বাকিদের মধ্যে অনেকেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।নেদারল্যান্ডস ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিএনও নিউজ এ খবর জানিয়েছে। চিকিৎসাধীন ব্যক্তিদের মধ্যে বেশিরভাগই সুস্থ হবেন বলে আশা চিকিৎসকদের।
রোমান রায়