প্রথমবার নাটক লিখেন মেহজাবীন

অল্প সময়ের ক্যারিয়ারে নান্দনিক অভিনয় দিয়ে দর্শক মনে ঠাই করে নিয়েছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী মেহজাবীন চৌধুরী। সারাবছরই ব্যস্ত থাকেন নাটক কিংবা টেলিফিল্মের শুটিং নিয়ে। তবে এবার প্রথমবারের মত নাটকের গল্প লিখেছেন এই অভিনেত্রী। গল্প লিখার পাশাপাশি চিত্রনাট্যও করেছেন। নাটকের নাম ‘থার্ড আই’। এটি পরিচালনা করেছেন শ্রাবণী ফেরদৌস।
গেল ২৬ ও ২৭ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর উত্তরা ও বনানীতে নাটকটির শুটিং শেষ হয়। নাটকের গল্প লিখার পাশাপাশি এতে মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন মেহজাবীন নিজেই। নাটকটিতে মেহজাবীনকে দেখা যাবে একজন নারী বিক্রয়কর্মীর চরিত্রে।
মেহজাবীন বলেন, একজন নারী হিসেবে আমি সবসময়ই সচেতন থাকি। আর এই গল্প ভাবনাটা আমার মাথায় এসেছে আরও কয়েকবছর আগেই। বিভিন্ন সময় আমরা যখন শপিং করতে যাই, তখন নানারকম তিক্ত অভিজ্ঞতার অনেক ঘটনাই শুনেছি। সেজন্য আমি কখনও শপিং করতে গেলে বা শুটিংয়ের জন্য হলেও কোন চেঞ্জিং রুমে ড্রেস চেঞ্জ করতে ইচ্ছুক না। প্রয়োজনে সেটা আমার গাড়িতে করবো নাহলে অন্য কোথাও না। এমন ভাবনাটা সবসময় আমার মাথায় কাজ করতো। এবার সেই ভাবনাটাকে নিয়েই একটা গল্প সাজিয়েছি।
প্রথমবার নাটকের গল্প লিখা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এটাই আমার প্রথম লেখা নাটক। নিজের সচেতনতার ভাবনাটাকে গুরুত্ব দিয়েই এটা লিখা। আমরা আমাদের পারিপার্শ্বিক অবস্হা, চলাফেরা থেকেই অনেক গল্প খুঁজে পাই। সামনে যদি সেরকম সুযোগ হয় তাহলে হয়তো মাঝেমাঝেই লিখার চেষ্টা করবো।
নাট্য নির্মাতা শ্রাবণী ফেরদৌস বলেন, নারীরা যেন এখন কোথাও নিরাপদ না। হোক সেটা রাস্তায় কিংবা শপিংমলে। শপিং মলে নারীদের পোশাক চেইঞ্জ করাটাও এখন খুব ঝুকিপূর্ণ। এমনই বিষয় নিয়ে নির্মিত হয়েছে বিশেষ নাটক ‘থার্ড আই’।
তিনি আরও বলেন, গেল বছরেও নারী দিবসের নাটক নির্মাণ করেছিলাম, সেটি বেশ প্রশংসিত হয়েছিল। এবার যখন একই প্রজেক্ট পেলাম তখন মেহজাবীনের সঙ্গে আলাপকালে সে তার পছন্দের একটি গল্প শেয়ার করে। গল্প শুনে মনে হলো, এরকম সচেতনতাটা আমাদের মধ্যে সবসময় থাকা দরকার। সেই জায়গা থেকে তার গল্প নিয়েই কাজটা করি এবং খুব সুন্দর একটি কাজ হয়েছে। মেহজাবীন কাজটির বিষয়ে ভীষণ সহযোগীতা করেছে।
নারী দিবস উপলক্ষে নির্মিত এই নাটকটিতে মেহজাবীন ছাড়াও আরও অভিনয় করেছেন মনির খান শিমুল, আবির মির্জা প্রমুখ। আগামী ৮ মার্চ নাটকটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভিতে প্রচারিত হবে।
রোমান রায়