পুত্র আরশ মায়ের কাছেই থাকবে, বাবার কাছে সপ্তাহে দু’দিন

ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমান ও মডেল মারিয়া মিম দম্পত্তির বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে গিয়েছে অনেকদিন হলো। কিন্তু এই দম্পতির সাড়ে ছয় বছর বয়সী পুত্র আরশ হোসেন রয়েছে। কিন্তু বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ হয়ে গেলে শিশু পুত্র আরশ কার কাছে থাকবে তা নিষ্পত্তি করতে কোর্টের কাছে দ্বারস্থ হোন। এবার কোর্টেই সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিলো তাঁর মায়ের হেফাজতে থাকবে। এই বলে আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। তবে, সপ্তাহে দুইদিন বাবা সিদ্দিকুর রহমান তাকে আনতে পারবেন এবং তাঁর সঙ্গে রাখতেও পারবেন। সিদ্দিক-মিমের বিচ্ছেদের পর এতোদিন আরশ তাঁর বাবা সিদ্দিকের কাছে ছিল। আগামীকাল বৃহস্পতিবারের মধ্যে ছেলে আরশকে তার মা মারিয়া মিমের কাছে দিয়ে আসতে সিদ্দিককে আদেশ দিয়েছেন আদালত। ছেলেকে নিজের কাছে রাখতে মা মারিয়া মিমের করা এক রিটের চূড়ান্ত শুনানি হয়েছে আজ। এখানে হাইকোর্টের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ রায় দেন। আদালতে আজ আরশ হোসেনের মায়ের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী জ্যোতির্ময় বড়ুয়া। সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী রিপন কুমার বড়ুয়া ও ফুয়াদ হাসান। অন্যদিকে, শিশু আরশের বাবা সিদ্দিকুর রহমানের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মোহাম্মদ আলী। সিদ্দিকুর রহমানের সঙ্গে ২০১২ সালে ২৪ মে বিয়ে হয় মারিয়া মিমের। পরের বছর ২৫ জুন আরশ হোসেনের জন্ম হয়। ২০১৯ সালে ১৯ অক্টোবর তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়। এরপর থেকে তার বাবা সিদ্দিকুর রহমানের হেফাজতে ছিল আরশ। ছেলেকে কাছে পেতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন মা মারিয়া মিম। এরপর প্রাথমিক শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট রুল দেন। রুলের চূড়ান্ত শুনানি নিয়ে আজ রায় দেন আদালত।এর আগে আজ সকালে বাবার হাত ধরে আদালতে আসে আরশ। রায় ঘোষণার সময় মারিয়া মিমও উপস্থিত ছিলেন আদালতে।
রোমান রায়