সুন্দরবন রক্ষায় কাজ করবো : ঐশী

‘ আমি বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পকে বিশ্ব দরবারে তুলে ধরতে কাজ করবো। আমাদের দেশে যেসব পর্যটন স্থান জানা রয়েছে তা তো তুলে ধরবোই পাশাপাশি যেসব পর্যটন স্থান পর্যটকদের কাছে এখনো অজানা তা খোঁজে বের করে বিশ্ব পর্যটকদের সামনে নিয়ে আসবো। একাজগুলো করতে আগামী ৩ মাসে দেশের ৬৪টি জেলায় আমি বেড়িয়ে পড়ায় পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাবো। এভাবেই ফিলিপাইনে মিসেস ট্যুরিজম গ্লোব বিজয়ী বাংলাদেশী ফারহানা আফরিন ঐশী তার অভিব্যক্তি প্রকাশ করলেন।
ফিলিপাইনে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক সুন্দরী প্রতিযােগিতা মিসেস টুরিজুম, ২০১৯-এর ওয়ার্ল্ড
ফাইনাল-এ “মিসেস ট্যুরিজম গ্লোব”-এর মুকুট জয় করে আনেন ফারহানা আফরিন ঐশী। এবারই প্রথমবারের মত কোন বাংলাদেশী এই আন্তর্জাতিক প্রতিযােগিতায় অংশগ্রহণ করে বিজয়ী হলেন। ‘মিসেস ট্যুরিজম বাংলাদেশ”-এর আয়ােজক অপর্ব ডট কম ঐশীকে সম্মাননা জানাতে আজ বুধবার, ১৩ নভেম্বর দুপুরে ঢাকা রিজেন্সী হােটেল অ্যান্ড রিসাের্ট-এ একটি সংবাদ সম্মেলনের আয়ােজন করে।
এতে ঐশী তার আগামী পরিকল্পনার কথা, কিভাবে মুকুট জিতে আনলেন তার গল্প,স্বামীর সহযোগিতার ও আয়োজকের অবদানের কথা তুলে ধরেন।
তিনি বলেন, আমি ফিলিপাইনে প্রতিযোগিতায় যাওয়ার পর খুবই টেনশনে ছিলাম। আমি কি পাড়বো এ নিয়ে আমার দ্বিধাদ্বন্দ্ব কম ছিলো না। আমি ভাবতাম আমি তাদের চেয়ে খাটো। ইংরেজিতে ততো পারদর্শী নন। আমাজে প্রথম প্রথম তারা তেমন গুরুত্ব দেয়নি। যখন আমি আমার মেধা দিয়ে উতরে গেলাম তখন আমার কদর বাড়লো। আমি বাংলাদেশের পতাকার সন্মান রাখতে পেড়ে ধন্য।
ঐশী এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, আমি সুন্দরবন রক্ষায় কাজ করে যাবো। পর্যটন এলাকার পরিবেশ যাতে সুন্দর থাকে তার সচেতনতা বাড়াতে ইইটিউবসহ সামাজিক মাধ্যমে প্রচারনা চালাবো। আমি একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলেছি তার মাধ্যমে আমার গান ও ট্যুরিজম নিয়ে নানান উদ্যোগের কথা প্রচার করবো। উদ্দেশ্য আমাদের পর্যটন খাতের ইতিবাচক প্রচারণা চালাবো। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দেশের টুরিজম সেক্টরের গণ্যমান্য লোকজন ও তারকারা। এরমধ্যে জাহারা মিতু বক্তব্য রাখেন। কথা বলেন আব্দুল লতিফ অপূর্বসহ অনেকে। আন্তর্জাতিক এই প্রতিযােগিতা, “মিসেস ট্যরিজম”-এ এবার ২৬ জন প্রতিযােগী অংশগ্রহন করেন। এই প্রতিজগিতায় পাঁচটি মুকুট –গ্লোব (Globe), আর্থ (Earth), ইন্টারন্যাশনাল (International), ওয়ার্ল্ড (World), ও ইউনিভার্স (Universe) -এর জন্য সমষ্টিগত বিচারকার্য পরিচালনা করা হয়। গ্র্যান্ড। করনেশন নাইট-এ “মিসেস ট্যুরিজম গ্লোব” সহ মােট ৬টি খেতাব জিতে নেন ২২ বছরের প্রতিযােগী ঐশী। অন্যান্য খেতাব গুলাে হলাে “বেস্ট ইন ফোরাম (Best In Forum)”, “ডার্লিং অফ দি প্রেস।
(Darling of the Press)”, “মিসেস নিক্স ইন্সস্টিটিউট (Mrs Nix Institute of Beauty)”, “মিসেস ফেয়ারী।
হােয়াইট (Mrs Fairy White)”, “মসেস বেরি গ্লুটা” (Mrs Berry GLUTA)।
“মিসেস টুরিজম বাংলাদেশ”-এর প্রেসিডেন্ট অপূর্ব আব্দুল লতিফ ঐশী কে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, “আমাদের দেশের অন্যতম সম্ভাবনাময়, আমাদের টুরিজম সেক্টর। আমাদের আছে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত – কক্সবাজার, সর্ববৃহৎ ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবন। আমাদের প্রধান মন্ত্রী স্বয়ং। বাংলাদেশের টুরিজম নিয়ে অনেক কাজ করছেন। এই প্রেক্ষাপটে বিশ্বের দরবারে আমাদের টুরিজম আরও ব্যপক পরিসরে পরিচিত করতে আমাদের এই প্রচেষ্টা। ঐশীর সাফল্য আমাদের যাত্রাকে। বেগবান করলাে। আশাকরি সকলের সহযােগিতা থাকলে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশকে তুলে ধরার এই যাত্রা নিয়মিত ভাবে অব্যাহত থাকবে।
ঐশী ৪ বছর বয়স থেকে সঙ্গীত ও নৃত্যে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা লাভ করেন। সম্মেলনে ঐশী সাংবাদিকদের জানান, ‘মুকুট জয় অবধি প্রতিটি পর্বেই আমি যে যে খেতাব গুলাে অর্জন করেছি আমার প্রতিবারই অবিশ্বাস্য লেগেছে। তবে যখন আমি এই মুকুটটি অর্জন করে এনেছি,এখন আমার মনে হচ্ছে এর সাথে কতটা দায়িত্ব জড়িয়ে আছে। আমি চাই এই দায়িত্বটি যথাযথ ভাবে পালন করতে।
এদিকে, অনুষ্ঠানে পর্যটন খাতের উপস্থিত অতিথিরা ঐশীকে অভিনন্দন জানান এবং তাদের সাথে এক হয়ে কাজ করার আহবান রাখেন।
মনিরুল ইসলাম