প্রকাশ্যে এলো ‘এক অসম্ভব স্বপ্ন ছুঁয়ে দেখার গল্প’

বিশ্ব জয় করার স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্যে এগিয়ে যাওয়া এক তরুণ। নিজের অধ্যবসায়,অক্লান্ত পরিশ্রম আর ধৈর্য্য যাকে এখন স্বপ্ন দেখাচ্ছে অলিম্পিকে স্বর্ণপদক জয় করা। ২০২০ টোকিও অলিম্পিকে অংশ নিতে যাওয়া তীরন্দাজ রোমান সানা’র কথা।’তীর গো ফর গোল্ড’ এর উদ্যোগে জার্মান আর্চারি কোচ এনে সর্বাত্ত্বক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে রোমান সানা’কে দক্ষ তীরন্দাজে পরিণত করছেন।এবং সেই জার্নি’টাকে বিজ্ঞাপনে তুলে নিয়ে এসেছেন দেশের স্বনামধন্য বিজ্ঞাপন হাউজ টোস্টার প্রোডাকশন।গত ৯ তারিখ সিটি গ্রুপের ‘তীর গো ফর গোল্ড’-এর অফিসিয়াল পেজে ওভিসি প্রকাশিত হয়। ২মিনিট ৫ সেকেন্ডের বিজ্ঞাপনে পুরো জার্নিটা দেখানো হয়েছে।সিটি গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় বিজ্ঞাপনে আসিফ পিয়াসের মূলভাবনায় বিজ্ঞাপনটিতে নির্দেশনা দিয়েছেন
বর্তমানের সময়ের জনপ্রিয় ও ব্যস্ততম বিজ্ঞাপন নির্মাতা রনি ভৌমিক। ব্যতিক্রমী ভাবনার গল্পে নান্দনিক উপস্থাপনায় চমৎকার নির্মাণশৈলীতে তাঁর প্রতিটি কাজে যেনো ভিন্নতার আমেজ ফুটে উঠে,এবং তাঁর প্রতিটি কাজই দর্শক প্রিয় হয়।এবারও সেই ধারাবাহিকতায় আবহ ছিলো এই বিজ্ঞাপনেও।বিজ্ঞাপনে রনি ভৌমিক সুনিঁপুন ভাবে রোমান সানা সাফল্যের পিছনে তাঁর পরিশ্রম আর চেষ্টা সংগ্রামটা তুলে নিয়ে এসেছেন। নির্মাতা রনি ভৌমিক ৪ বছরের ক্যারিয়ারে প্রায় শতাধিক বিজ্ঞাপন নির্দেশনা দিয়েছেন। নির্মাতা রনি ভৌমিক বলেন,’আমি সব সময় চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ করতে ভালোবাসি। আমি একটা কাজ করার পূর্বে সব প্ল্যান করে প্রস্তুতি নিয়ে রাখি।ঠিক আমি এই কাজটাও খুব প্রস্তুতি নিয়ে গুছিয়ে করার চেষ্টা করেছি।আমি এই বিজ্ঞাপনে নির্দেশনা দেওয়ার সময় প্রত্যেকটা জায়গা ধরে ধরে কাজ করেছি।আমার সব সময় ভালো গল্পের প্রতি দুর্বলতা আছে এবং সেটা নিয়ে কাজ করতে আমি বেশি আগ্রহী হই। এই কাজটিও আমার সেই রকমেরই একটি গল্পের ছিলো বলেই আমি কাজটা করেছি।এই গল্পটিও একটি এমন অচেনা মানুষের গল্প, যাকে পরিপূর্ণ ভাবে গল্পে ফুটিয়ে তোলার মূল দ্বায়িত্ব ছিলো আমার। এই কাজটি আমার জন্য বেশ চ্যালেঞ্জিং ছিলো।আমি সেই চ্যালেঞ্জ নিয়ে সেই শ্রমটা দিয়ে রোমান সানা’র গল্পটা দেখিয়েছি।এবং আমি এই কষ্টটা চেষ্টাটা দিয়ে সবার সামনে ঠিকঠাক ভাবে তুলে ধরতে পেরেছি। দর্শকদের ভালো লাগলে আমার স্বার্থকতা।’
উল্লেখ্য,বিজ্ঞাপনটির প্রযোজক ছিলেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী টোস্টার প্রোডাকশনের ব্যবস্থাপক নোভা ফিরোজ।বিজ্ঞাপনী সংস্থা হিসেবে ছিলো-পিংক ক্রিয়েটিভ লিঃ।ক্যামেরায় ছিলেন-রাশেদ জামান,সম্পাদনায়-রাশেদুজ্জামান সোহাগ,সংগীতায়োজনে-জাহিদ নিরব(বাটার কমিনিউকেশন)।কালার এবং অনলাইনে-দ্যা পোস্ট ব্যাংকক কো.লি. স্পাইস শপ বাই দ্যা পোস্ট ব্যাংকক।
রোমান রায়