অনন্ত-বর্ষার অজানা কথা

প্রতিবারের মতো এবারও ঈদ উপলক্ষে টিভি চ্যানেলগুলো’তে প্রচারিত হবে নানা সেলিব্রেটি শো। এই সেলিব্রেটি শোগুলোতে যেন তারকারা ব্যাক্তিজীবনের নানা গল্পের ঝাঁপি খুলে বসেন। তেমনি আসছে এবারের ঈদে মাছরাঙা টেলিভিশনের অতিথি হয়েছেন তারকা দম্পতি অনন্ত জলিল ও বর্ষা।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে তারা জানালেন তাদের দু’জনের নামকরণের ইতিহাস। কিভাবে হলো তাঁদের অনন্ত-বর্ষা নাম। অনন্ত-বর্ষা নামে তাদের সবাই চিনলেও তাদের আদি নাম যথাক্রমে সঞ্জু ও খাদিজা।
অনুষ্ঠানে অনন্ত জলিল বললেন তার নামের পেছনের গল্প- “ছোটবেলায় খুব দুষ্টু ছিলাম। তখন আমার গৃহশিক্ষক আব্দুল জলিলের নামের অনুপ্রেরণায় বাবা আমার নাম রেখে দেন ‘আব্দুল জলিল’। পরবর্তীতে আমার বড় ভাই আমার ডাক নাম রাখেন ‘অনন্ত’। এই নামটি আমার খুব পছন্দ হয়। যে কারণে আমি এখন অনন্ত জলিল।”
অন্যদিকে বর্ষা জানান, ছোটবেলায় তার নাম ছিল ‘খাদিজা’। সেখান থেকে বড় হবার পর ঘটনাক্রমে তার নাম বর্ষা রাখা হয়।
অনুষ্ঠানে তারা জানান, খুব শিগগীরই ‘দিন-দ্য ডে’ ছবি নিয়ে পাঁচ বছর পর বড় পর্দায় দেখা যাবে তাদের।
চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করতে গিয়ে ইরানে ৪৭ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রার ভেতরেও কাজ করেছেন এ ছবির জন্য।
সংখ্যাতত্ত্ব কিংবা জ্যোতিষশাস্ত্রে বিশ্বাস না করলেও ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১১ অনন্ত-বর্ষার বিয়ে হয় এবং তাদের দুই সন্তান আরীজ ও আবরারের জন্ম হয় যথাক্রমে ২৩ অক্টোবর ও ২৩ নভেম্বর।
রুম্মান রশীদ খান ও সাকীর উপস্থাপনায় রকিবুল আলম ও জোবায়ের ইকবালের প্রযোজনায় দুই ঘন্টার ব্যাপী ‘রাঙা সকাল’-এর এই বিশেষ পর্বটি প্রচারিত হবে ঈদের ২য় দিন সকাল ৭টা থেকে ৯টা, মাছরাঙা টেলিভিশনে।
রোমান রায়