ইভান শাহরিয়ার সোহাগের সাফল্য

ইভান শাহরিয়ার সোহাগ, বাংলাদেশের এই সময়ের অন্যতম একজন সেরা নৃত্য পরিচালক। বাংলাদেশের সিনেমার অধিকাংশ নায়িকা এবং নাটকের প্রায় সব অভিনেত্রী মূলত যারা বিভিন্ন অনুষ্ঠানে নৃত্য পরিবেশন করে থাকেন তারা সবাই সোহাগের নৃত্য পরিচালনায় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে নেচেছেন। যে কারণে শিল্পীদের কাছে আস্থার এক নাম ইভান শাহরিয়ার সোহাগ।
সোহাগের পরিকল্পনা ও নৃত্য পরিচালনায় আগামী ঈদে টানা সাতদিন ব্যাপী দীপ্ত টিভিতে প্রচার হবে বিশেষ নৃত্যানুষ্ঠান ‘সাত রঙ্গের ছন্দে’। সাতদিন ব্যাপী এই অনুষ্ঠানে সোহাগের নৃত্য পরিচালনায় নাচবেন ত্রিশ জন নায়িকা। যাদের মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হচ্ছেন আঁচল, আইরিন, তমা মির্জা, জলি, নাদিয়া আহমেদ, মেহজাবিন চৌধুরী, সোনিয়া হোসেইন, রুমা, ইমি, হিমি, মুক্তি, রিদি শেখ, মিম চৌধুরী, মারিয়াসহ আরো অনেকে। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করবেন নিসা ও পোলক। এরইমধ্যে সাতটি পর্ব ধারণের কাজ শেষ হয়েছে।
অনুষ্ঠানটির নৃত্য পরিচালনা প্রসঙ্গে সোহাগ বলেন, ‘আমি দীপ্ত টিভি কর্তৃপক্ষের প্রতি কৃতজ্ঞ। কারণ তারা আমার পরিকল্পনাকে সাধুবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করতে বেশ উৎসাহ দিয়েছেন। ত্রিশজন শিল্পীসহ অনুষ্ঠানের প্রযোজক, উপস্থাপক নিসা ও পোলকসহ প্রত্যেকের কাছে কৃতজ্ঞ। কারণ সবাই আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করেছেন, যথেষ্ট শ্রম দিয়েছেন। যে কারণে অনুষ্ঠানটিও অনেক সুন্দর হয়েছে। আমি যে কোনো অনুষ্ঠানই করার জন্য নিজের কথা না ভেবেই অনেক শ্রম দিয়ে থাকি। কারণ আমি মনেকরি দর্শকের কাছে ভালোলাগাই হচ্ছে আমার পুরস্কার। এই অনুষ্ঠানের বিশেষ দিক হচ্ছে সাত দিন সাতটি রঙ্গে শিল্পীরা উপস্থিত হবেন। যে কারণে অনুষ্ঠানের নাম রাখঅ হয়েছে সাত রঙ্গের ছন্দে। আমি খুবই আশাবাদী অনুষ্ঠানটি নিয়ে। কারণ এর আগে এই ধরনের অনুষ্ঠান বাংলাদেশে হয়নি।’
দীপ্ত টিভিতে ঈদের দিন থেকে টানা সাতদিন রাত ১০.৩০ মিনিটে প্রচার হবে অনুষ্ঠানটি। এদিকে দীর্ঘদিন পর বিটিভির ‘আনন্দ মেলা’ অনুষ্ঠানে পঞ্চাশ’জন পারফর্মারের সঙ্গে নৃত্য পরিবেশন করেছেন নন্দিত অভিনেত্রী তারিন জাহান। তার নৃত্য পরিচালনা করেন ইভান শাহরিয়ার সোহাগ।
সোহাগ জানান মাত্র চার বছর বয়স থেকে সোহাগ নাচ করা শুরু করেন। তবে ১৪ বছর বয়স থেকে তিনি নৃত্য পরিচালনার কাজ শুরু করেন। দীর্ঘ দুই যুগ যাবত তিনি বেশ সুনামের সঙ্গে একজন নৃত্য পরিচালক হিসেবে কাজ করে আসছেন। গেলো ১৮ জুলাই সোহাগ ‘সাঁকো টেলিফিল্ম’র অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে রুনা লায়লার হাত থেকে নৃত্যে শ্রেষ্ঠত্বর স্বীকৃতি লাভ করেন।
রোমান রায়