ওয়াশিংটন ডিসিতে ফোবানার সভা

আগামী লেবার ডে উইকেন্ডে (৩০, ৩১ আগস্ট ও ১ সেপ্টেম্বর শুক্র শনি ও রবিবার) নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ডে নাসাউ কলসিয়ামে অনুষ্ঠেয় ৩৩তম ফোবানা সম্মেলনকে সফল করার লক্ষ্যে গত শনিবার ওয়াশিংটন ডিসিতে অনুষ্ঠিত হলো ‘ফোবানা টাউন হল সভা’।
আমেরিকান বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটির উদ্যোগে এই সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব আমেরিকা ইনক (বাই) এর প্রাক্তন সভাপতি ও ফোবানার প্রাক্তন ট্রেজারার, বৃহত্তর ওয়াশিংটনের বিশিষ্ট সংগঠক ইনারা ইসলাম এবং পরিচালনা করেন লেখক-সাংবাদিক শিব্বীর আহমেদ। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ফোবানার নির্বাহী চেয়ারম্যান মীর চৌধুরী এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন ফোবানার প্রাক্তন চেয়ারম্যান ও বর্তমান কমিটির আউস্ট্যান্ডিং মেম্বার আতিকুর রহমান আতিক। সভামঞ্চে ছিলেন বাই’র সহ-সভাপতি সালেহ আহমেদ, একাত্তর ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান পারভিন পাটোয়ারী, ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্যামেলি ডিএমভি সভাপতি আকতার হোসেন, আমরা বাঙালি ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান আরশাদ আলী বিজয়, ওরা এগারোজন সভাপতি আবদুস সাত্তার, সুরবিতানের সভাপতি বুলবুল ইসলাম, বর্ণমালার সেলিম আক্তার, আমেরিকা বাংলাদেশ বিজনেস এসোসিয়েশনের সভাপতি সাদেক এম খান, জ্ঞানবাহনের ড. বদরুল হুদা খান, বন্ধন এসোসিয়েশনের জামাল হোসেন, শামছুজ্জামান খান, আমেরিকা বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটির জি আই রাসেল। সভায় আরো বক্তব্য রাখেন মুনির হোসেন, সেলিম আক্তার, মামুন খান প্রমুখ।
বক্তারা উল্লেখ করেন, নিউইয়র্কে ফোবানাকে সফল ও স্বার্থক করবার জন্য ওয়াশিংটন ডিসি থেকে প্রায় ৬০ হাজার ডলারের মত সহযোগিতা প্রদান করা হয়। তাছাড়া ওয়াশিংটন থেকে তিনজন ‘ফোবানা আইকন’ কবির পাটোয়ারী, পারভিন পাটোয়ারী ও জি আই রাসেলকে এ সময় বিশেষভাবে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়। নেতৃবৃন্দ আরো জানান, ওয়াশিংটন থেকে এবার সর্বোচ্চ ১৫টি সংগঠন রেজিস্ট্রেশন করেছে, যা ভবিষ্যতে ফোবানাকে ওয়াশিংটনের মাটিতে আরো ছড়িয়ে দিতে সহযোগিতা করবে।
উল্লেখ্য, ২০২১ সালে ওয়াশিংটনে ফোবানার ৩৫তম সম্মেলনের হোস্ট হবার আবেদন জানানো হয়েছে। সে লক্ষ্যে আমেরিকান বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটি এবং আবেদনের পক্ষে ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার ১৫টি সংগঠন কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করছে। এই ১৫ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ জি আই রাসেলের নেতৃত্বে ৩৫তম ফোবানা সম্মেলনের হোস্ট হতে সকলের সহযোগিতা ও ভোট প্রার্থনা করেছেন।
একটি সংগঠনের ব্যানারে এতগুলো সংগঠনের ঐক্যবদ্ধ হবার ভূমিকায় মুগ্ধ হয়ে সভার বিশেষ অতিথি আতিকুর রহমান আতিক ২০২১ সালে ওয়াশিংটনে ফোবানা সম্মেলনের জন্য ‘আমেরিকা বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটি’র পক্ষ্যে তার সমর্থন ঘোষণা করেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মীর চৌধুরী ফোবানাকে সফল ও স্বার্থক করার জন্য ওয়াশিংটনের সমর্থন ও সহযোগিতা অব্যাহত রাখার উদাত্ত আহ্বান জানান। তিনি বলেন, আপনাদের কথা শুনেছি। ফোবানাকে সফল ও স্বার্থক করার জন্য আপনাদের অবদান ফোবানা অবশ্যই স্মরণ রাখবে। তিনি উল্লেখ করেন, ওয়াশিংটন থেকেই ফোবানার জন্ম হয়েছে ১০৮৭ সালে এবং যার মাধ্যমে এই ফোবানার রেজিস্ট্রেশন ও ট্রেডমার্ক করা সম্ভব হয়েছিল ফোবানার, সেই নেত্রী ইনারা ইসলাম আজ এই টাউন হল সভায় সভাপতিত্ব করছেন- যা আমার জন্য বড় পাওয়া।
তিনি বলেন, ফোবানা একটি নির্দিষ্ট নিয়ম ও আইন-কানুরের মধ্য দিয়ে পরিচালিত হয়। ২০২১ সালে ফোবানা সম্মেলন কোথায় অনুষ্ঠিত হবে তা ৩৩তম সম্মেলনের সাধারণ সভায় নির্ধারিত হবে। তবে আজকের এই সভায় ওয়াশিংটনের এতগুলো সংগঠনের নেতাদের দেখে আমি অভিভূত ও মুগ্ধ।
রোমান রায়