মরিশাসে নুসরাত-নিখিল’র হানিমুন

বিয়ের পরের সময়টা প্রচন্ড ব্যস্ততার মধ্যে কেটেছে তার। একদিকে সাংসদ হিসাবে শপথ নেওয়া। অন্যদিকে নির্বাচনী এলাকায় বেশ কিছু দাঙ্গা হাঙ্গামা। তার উপর নিজের পোশাক আর ধর্ম নিয়ে সমালোচনা যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছিল না।
অবশেষে সবকিছু সামলে যখন নিজের জন্য একটু সময় হাতে এলো। সেই সময়টাকে একদমই নষ্ট করতে চাইলেন না কলকাতার অভিনেত্রী নুসরাত জাহান।
স্বামীকে নিয়ে মধুচন্দ্রিমায় চলে গেলেন তিনি। নিখিলের সঙ্গে মধুচন্দ্রিমা কাটাতে মরিশাস পাড়ি দিলেন এই দম্পতি।
প্রথমে কলকাতা থেকে মুম্বাই, তারপর সেখান থেকেই মরিশাসের উদ্দেশ্যে উড়াল দিয়েছেন এই নবদম্পতি। তাদের সোশ্যাল মিডিয়া থেকেই জানা গিয়েছে মরিশাস উড়ে যাওয়ার খবর।
পোস্ট করা বিভিন্ন ছবিতে দেখা গেল মুম্বাইয়ের ছত্রপতি শিবাজী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ঘুম চোখেই বিমানের জন্য অপেক্ষা করেছেন অভিনেত্রী নুসরাত। মুম্বই যাওয়ার আগে কলকাতা বিমানবন্দরেও খোশমেজাজে ধরা পড়লেন নুসরাত ও নিখিল।
বিমানের রোম্যান্টিক মুহূর্তের ছবিও পোস্ট করছেন তারা। পোস্ট করছেন বিমানের টিকিটের ছবিও।
এর আগে গত ১৯ জুন তুরস্কের বোদরুম শহরে ঘটা করে আয়োজন করা হয়েছিল নুসরাত-নিখিলের ডেস্টিনেশন ওয়েডিংয়ের অনুষ্ঠান। বিয়ের দিন নুসরাতের পরনে ছিল লাল লেহেঙ্গা চোলি, মাথায় লাল ওড়না, হাতে লাল-সাদা ও সোনালি রঙের চূড়ি ও কালিরাস, মাথায় টিকলি ও গলায় ভারি গয়নাতে নুসরাতকে লাগছিল মোহময়ী। সঙ্গে নিখিল জৈনকে দেখা গিয়েছিল সাদা শেরওয়ানিতে। মাথায় ছিল সাদা পাগড়ি। গলায় সবুজ হার। নিখিলকেও খানিকটা রাজপুত্রের মতো দেখাচ্ছিল বললেও ভুল হয় না।
অঞ্জন দাস