জনপ্রিয় হয়ে উঠছে ওয়েব সিরিজ

সারাবিশ্ব এখন ওয়েব সিরিজে মাতোয়ারা। বর্হিবিশ্বে এখন সিনেমার পাশাপাশি ওয়েব সিরিজ বেশ জনপ্রিয় হয় উঠেছে।এর ব্যতিক্রম নয় আমাদের বাংলাদেশেও।তাই তো এখন সিনেমার চেয়ে সবাই ওয়েব সিরিজ নির্মাণে একটা হিড়িক পড়ে গিয়েছে। কিন্তু মানসম্মত নির্মাণ নিয়ে কথা উঠছে প্রতিনিয়তই। হাতে গুনা কয়েকজন ভালো ভালো কন্টেন্ট নিয়ে দুর্দান্ত কাজ দেখাচ্ছেন।এবারই এমনই দুর্দান্ত ছিলো নিয়ে হাজির হচ্ছেন চিত্রপরিচালক সৈকত নাসির।এবার তিনি দর্শকদের ভিন্নস্বাদ দিতে নিয়ে আসছেন তার নির্মাণে নতুন ওয়েব সিরিজ ‘ট্র্যাপড’!
ইনোভেট সলিউশনের প্রযোজনায় পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে থ্রিলার রোম্যান্টিক ঘরানার এ ওয়েব সিরিজটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে ‘সিনেস্পট’ অ্যাপে। মঙ্গলবার(২১মে) প্রকাশ পেয়েছে ‘ট্র্যাপড’-এর টিজার। এটির কাহিনি, চিত্রনাট্য করেছেন আসাদ জামান। আর এতে প্রধান প্রধান চরিত্রগুলোতে অভিনয় করেছেন এ কে আজাদ, চিত্রনায়িকা আইরিন, আমান রেজা, ও রিও।নির্মাতা সৈকত নাসির জানান, ১২ পর্বে মুক্তি দেয়া হবে ট্র্যাপড। ঈদের আগের রাত থেকে সিনেস্পটে এটি মুক্তি পাবে। প্রতিটি পর্বের সময়সীমা হবে ১৫ মিনিট করে।
‘দেশা দ্য লিডার’, ‘পাষাণ’,হিরো৪২০-এই সিনেমাগুলো নির্মাণ করে তিনি আগে থেকেই বেশ আলোচিত। তার পরিচালনায় প্রথম সিনেমা ‘দেশা দ্য লিডার’-এর মাধ্যমে পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং বাচসাস পুরস্কার লাভ করেন।এই নির্মাতা এবারই প্রথমবার কোনো ওয়েব সিরিজ বানালেন। বললেন,এখানে গল্পে নির্মাণে দর্শকরা সিনেমার স্বাদ পাবে ট্র‌্যাপড-এ। সিনেস্পট কর্তৃপক্ষ এটি নির্মাণে খুব সাহায্য করেছেন। বাজেট ভালো ছিল। সেই অনুযায়ী সিনেমার স্বাদ দিয়েছি।
সোশ্যাল নেটওয়ার্কিংয়ের মাধ্যমে দুজন ছেলেমেয়ের পরিচয় ও বিয়ে হয়। বিয়ের পরদিন তারা ইন্দোনেশিয়ার বালিতে বেড়াতে যান। সেখানে গিয়ে মেয়েটার নানা নাটকীয়তার মাধ্যমে একের পর এক ট্র‌্যাপে পড়তে থাকে। যাকে বিয়ে করেন সেই ছেলেটিই সব কলকাঠি নাড়তে থাকেন। তার মধ্যেই এগিয়ে আসেন এ কে আজাদ ও আমান রেজা।
ফাঁদে পড়া মেয়েটির চরিত্রে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়িকা আইরিন। এছাড়াও তিনি পার্টনার ও ধোঁকা নামে দুটি ওয়েব সিরিজ করেছেন। প্রথমে আসছে ট্র‌্যাপড।চিত্রনায়িকা আইরিন বলেন,সিনেমার পাশাপাশি এখানে দারুণ একটি কাজ করলাম।ওয়েব সিরিজ হলেও সবকিছুই ছিলো সিনেমা ঘরোয়ানা। গেল ফেব্রুয়ারিতে বালিতে শুটিং করেছি। পুরো গল্পটাই টানটান থ্রিলারে ভরা।এটি আসলেই ছিলো পুরোপুরি ফিল্মি টাইপ ওয়েব সিরিজ। তিনি আরো বলেন,এখানে একটি জিনিস বুঝানোর ছিলো যে, দেশ এবং নারী কখনও পণ্য হতে পারে না সেটা ফুটিয়ে তোলা হয়েছে ওয়েব সিরিজটিতে।
রোমান রায়